Mithai: কীভাবে আটকাবেন মিঠাই বন্ধ হয়ে যাওয়া! মিঠাইকে বাঁচাতে হলে এই ছোট্ট কাজটা করুন

যতদিন এগোচ্ছে মিঠাই ধারাবাহিকের টিআরপি কমেই চলেছে। যদি এভাবেই টিআরপি কমতে থাকে তাহলে চ্যানেল কর্তৃপক্ষ বাধ্য হয়ে ধারাবাহিকটি কে বন্ধ করে দেবে। কিন্তু যদি ধারাবাহিকের টিআরপি বেড়ে যায় তাহলে কিন্তু আর ভয়ের কোন কারণ নেই তাহলে আর বন্ধ হবেনা মিঠাই। তবে টিআরপি বাড়ানোর জন্য একজন মিঠাই ভক্ত হয়ে আপনারা কি করতে পারেন সেই নিয়ে আজকে কথা বলবো।

এই আলোচনায় গেলে প্রথমেই আসছে হচ্ছে প্রোমো। বহুদিন হয়ে গেল মিঠাই ধারাবাহিকের নতুন কোন প্রোমো আসছে না। অন্যদিকে প্রতিপক্ষ একের পর এক নতুন প্রোমো এনেই চলেছে এমনকি জি বাংলাতেও নতুন ধারাবাহিক গুলোর প্রোমো এসে যাচ্ছে। কিন্তু মিঠাইয়ের কোন প্রোমো আসছে না। চ্যানেল কর্তৃপক্ষের উচিত এই মুহুর্তেই একটি নতুন প্রোমো নিয়ে আসার।

যদি দ্বিতীয় পয়েন্টে আসা যায় তাহলে সেটা হবে গল্প থেকে আকর্ষণ হারাচ্ছে দর্শকেরা। সেই এক ঘেয়েমি গল্প ছদ্মবেশ আগেও দেখেছে দর্শকেরা তাই নতুন কিছু দেখতে চাইছে তারা। তৃতীয় পয়েন্টটি হল ধারাবাহিকে অনেকদিন কোন আউটডোর শুটিং দেখানো হয়নি। কর্তৃপক্ষের উচিত আউটডোরের একটি ভালো এপিসোড দর্শকদের উপহার দেওয়া।

চতুর্থ এবং সর্বশেষ পয়েন্ট হল যার জন্য শুধু মিঠাই না অন্য সমস্ত ধারাবাহিকের টিআরপি কমে যাচ্ছে। সেটা হল অনেক ফেসবুক পেজ অথবা টেলিগ্রাম চ্যানেল এমন আছে যারা এপিসোড গুলি টিভিতে সম্প্রচার হওয়ার আগেই তাদের পেজে অথবা চ্যানেলে পাবলিশ করে দেয়। আর আপনারা সেখান থেকে এপিসোড গুলো দেখে নেন। এর ফলে মেন চ্যানেলে যখন এপিসোডটি সম্প্রচার করা হয় তখন আপনারা সেই সময় টিভিতে দেখেন না।

এর ফলে টিআরপি কমতে থাকে ধারাবাহিকের। আর একদম পরিষ্কার কথা টিআরপি কমলে চ্যানেল বাধ্য হবে ধারাবাহিকটি বন্ধ করতে। এই কাজ আজ থেকে নয় অনেক দিন ধরেই চলে আসছে আর এর ফলে অনেক ধারাবাহিকের টিআরপি কমেছে এবং ক্ষতি হচ্ছে প্রোডাকশন হাউজ গুলোর। তবে কোন কিছুতেই কাজ হচ্ছে না।

তাই একমাত্র আপনারাই পারেন এটা বন্ধ করতে যদি আপনারা এপিসোড গুলো পেজ থেকে, টেলিগ্রাম থেকে বা অন্য যেসব জায়গা থেকে আছে সেখান থেকে না দেখেন বরং টিভিতে আইনিভাবে যখন সম্প্রচার করা হবে সেই সময়ে দেখেন।

তাহলে কিন্তু আপনার পছন্দের ধারাবাহিকের টিআরপি বেড়ে যাবে অর্থাৎ মিঠাইয়ের টিআরপি বেড়ে যাবে। ফলে কর্তৃপক্ষ আর বন্ধ করতে চাইবেনা ধারাবাহিকটি। এবার সম্পূর্ণটা আপনাদের হাতে না হলেও কিছুটা তো আপনাদের হাতে আছে। আপনারা যদি মিঠাইয়ের সেরকম ভক্ত হন তাহলে এই কাজটাই করুন একটু তো সাহায্য হবে মিঠাই কে বাঁচাতে।

Back to top button
close